বিকাশ একাউন্ট লক হলে করণীয়। বিকাশ একাউন্ট বন্ধ

বিকাশ একাউন্ট লক হলে করণীয়– আসসালামু আলাইকুম প্রিয় পাঠক বৃন্দ, কেমন আছেন সবাই। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আপনি কি বিকাশ একাউন্ট লক হলে করণীয় সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে আজকের পোস্টটি আপনার জন্য। আজকে আমি শেয়ার করব বিকাশ একাউন্ট লক হলে করণীয় নিয়ে। আশা করি সবাই মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

মোবাইল ব্যাংকিং সেবার সহজলভ্যতার কারণে সবাই এখন মোবাইল ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করেছে।  আজকাল, যারা মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন তাদের প্রত্যেকের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ একাউন্ট রয়েছে।  মোবাইল ব্যাংকিং এর কিছু শর্তাবলী আছে।  অনেক সময় গ্রাহকের অজান্তেই বিভিন্ন ভুলের কারণে বিকাশ একাউন্ট লক হয়ে যেতে পারে।

আজকের পোস্টে আমি আপনাদের সাথে “বিকাশ একাউন্ট লক হলে কি করতে হবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।  বিকাশ একাউন্ট কেন লক হতে পারে এবং বিকাশ একাউন্ট লক হলে কি করতে হবে তা আলোচনা করার চেষ্টা করবো।  তো চলুন বন্ধুরা আলোচনা শুরু করি।

আরও দেখুনঃ

বিকাশ একাউন্ট লক হওয়ার কিছু কারণ

আমাদের প্রায় সকলেরই বিকাশ একাউন্ট রয়েছে। যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট হঠাৎ লক হয়ে যায়, তাহলে একাউন্ট বন্ধ হওয়ার কারণটি প্রথমে চিহ্নিত করতে হবে। কিছু সমস্যা আছে যা আপনি ঘরে বসেই সমাধান করতে পারবেন।  আর কিছু সমস্যা আছে যেগুলো বিকাশ কাস্টমার কেয়ারে গিয়ে সমাধান করতে হবে।  এখন জেনে নেওয়া যাক কি কি কারনে বিকাশ একাউন্ট লক হয়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুনঃ  বাটন দিয়ে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম। Nagad Account

বিকাশ একাউন্ট লক হওয়ার কিছু কারণ

  1. যদি আপনি একই সময়ে 3 বার ভুল পিন ব্যবহার করেন।
  2. বিকাশ একাউন্টের তথ্য আপডেট না হলে।
  3. আপনি যদি দীর্ঘদিন বিকাশ একাউন্টে লেনদেন না করেন।
  4. যে সিমটিতে বিকাশ একাউন্ট খোলা হয়েছে সেটি যদি আপনি রিপ্লেস করেন।

বিকাশ একাউন্ট লক হলে করণীয়

একবার আপনার বিকাশ একাউন্ট লক হয়ে গেলে আপনি বিকাশ হেল্পলাইনে যোগাযোগ করে এবং বিকাশ কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সহায়তায় আপনার লক হওয়া বিকাশ একাউন্টটি পুনরায় সক্রিয় করতে পারবেন। এখানে একটি বিষয় খুব স্পষ্ট যে আপনার বিকাশ একাউন্টটি হঠাৎ লক হয়ে গেলে আপনি কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সাহায্য ছাড়া আপনার লক হওয়া বিকাশ একাউন্টটি পুনরায় সক্রিয় করতে পারবেন না।

আপনি যদি বিকাশ হেল্পলাইন প্রতিনিধিদের সাহায্যে সহজেই আপনার বিকাশ একাউন্ট পুনরায় সক্রিয় করতে চান তবে নীচের পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন।

  1. প্রথমে আপনার মোবাইল থেকে বিকাশ হেল্পলাইন – 16247- এ কল করুন।

  2. যখন আপনি বিকাশ হেল্পলাইনে কল করবেন তখন আপনি তাদের কাছে আপনার সমস্যার কথা বর্ণনা করবেন।

  3. আপনার বিকাশ একাউন্ট লক হওয়ার সঠিক কারণ সম্পর্কে সহায়তা কেন্দ্রের প্রতিনিধিকে জানান।

  4. আপনি যখন তাদেরকে আপনার বিকাশ একাউন্ট লক হওয়ার বিষয়ে বলবেন তখন তারা আপনার কাছে কিছু ডকুমেন্ট চাইবে। ডকুমেন্ট চাইলে অবশ্যই তাদেরকে দিতে হবে।

  5. ডকুমেন্ট হিসাবে, আপনি যে এনআইডি কার্ড দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খুলেছেন তার সকল তথ্য সহ আপনাকে আপনার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে।

  6. তারা আপনার বিকাশ একাউন্টের শেষে কিছু লেনদেনের বিবরণ বা তথ্য চাইবে এবং আপনাকে তা প্রদান করতে হবে।

  7. আপনার দেওয়া সকল তথ্য বিবেচনা করে তারা আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আপনার লক হওয়া বিকাশ একাউন্ট পুনরায় সক্রিয় করতে সহায়তা করবে।

আরও পড়ুনঃ  বিকাশ অ্যাপে তথ্য আপডেট করে পেয়ে যান ১০ টাকা বোনাস

বেশিরভাগ সময় হেল্পলাইনের সাহায্যে বিকাশ একাউন্ট পুনরায় চালু করা সম্ভব।  আর যদি কোনো কারণে লক থাকা বিকাশ একাউন্ট সক্রিয় না হয় তাহলে আপনাকে আবার নতুন বিকাশ একাউন্ট খুলতে হবে।

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে কি করবেন?

যদি আপনার বিকাশ কাউন্ট বন্ধ হয়ে থাকে, আপনি আপনার সমস্যা সমাধানের জন্য সরাসরি আপনার নিকটস্থ বিকাশ কাস্টমার কেয়ার অফিসে যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনার কাস্টমার কেয়ার অফিসে কি কি ডকুমেন্ট নিয়ে যেতে হবে তা নিচে আলোচনা করা হল।

  1. আইডির আসল কপি (NID, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স) যা দিয়ে আপনি আপনার বিকাশ একাউন্ট খুলেছেন।

  2. যে সিম নাম্বারে আপনার বিকাশ একাউন্ট খোলা হয়েছে।

  3. যার নামে এটি খোলা হয়েছে তাকে অবশ্যই যেতে হবে।

বিকাশ লাইভ চ্যাট

যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট লক হয়ে থাকে তবে আপনি এটির জন্য Bkash লাইভ চ্যাটে কথা বলতে পারবেন। বিকাশ লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে আপনি আপনার বিকাশ একাউন্টের যেকোনো সমস্যা সমাধানের জন্য লাইভ চ্যাট ব্যবহার করতে পারবেন।  বিকাশ লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট সমস্যার তাৎক্ষণিক সমাধান পাওয়া যায়।

বিকাশ লাইভ চ্যাট লিঙ্কটি এখানে আপনার সুবিধার জন্য দেওয়া হল।  এই বিকাশ লাইভ চ্যাটের মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট সম্পর্কিত সকল প্রয়োজনীয় সেবা নিতে পারবেন।

বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার

24/7 নিরবচ্ছিন্ন সেবা পেতে আপনি বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন।

  • বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার হল 16247

যেকোনো মোবাইল সিম অপারেটর থেকে যোগাযোগ করতে পারবেন।

শেষ কথা

আজকের পোস্টে বিকাশ একাউন্ট লক হলে কি করবেন তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আমি যতটুকু জানি তা আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি। আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন। আপনি যদি এই বিষয় নিয়ে আরও জানতে চান তাহলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ সবাইকে।

Rate this post