2021 সালের 20 টি সেরা বিজনেস আইডিয়া

আপনাদেরকে জানাবো 2021 সালের 20 টি সেরা ব্যবসা। যে ব্যবসা গুলো আপনি স্বল্প পুঁজিতে করতে পারেন। বন্ধুরা আপনারা যদি বছরের প্রথম এই পরিকল্পনা করে নিতে পারেন আপনি বছরটি কিভাবে পার করবেন তাহলে তো আপনি সফল। কারণ হচ্ছে যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে আপনি যদি পরিকল্পনা ঠিক করতে পারেন তাহলে আপনি সেই কাজে অর্ধেক সফলতা অর্জন করেছেন। আপনি যদি ভেবে থাকেন আপনি ব্যবসা করবেন তাহলে জেনে নিন 2021 সালের সেরা বিশটি বিজনেস আইডিয়া। এই ব্যবসা গুলো আপনি সহজেই শুরু করতে পারবেন। এখান থেকে যেকোন একটি ব্যবসা আপনি শুরু করে জীবনটাকে পরিচালিত করতে পারেন।

1.কাপড় ও কাগজের ব্যাগ তৈরির ব্যবসা

বন্ধুরা আমাকে তো প্রতিদিনই এসব ব্যাগ ব্যবহার করতে হচ্ছে। সুতরাং এর চাহিদা প্রচুর পরিমাণে রয়েছে আপনি যে গ্রামে থাকুননা কেন আপনি শহরে থাকুন না কেন সব জায়গায় ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি আপনার বাসায় সেলাই করে ব্যাগ তৈরি করতে পারেন। অনেকে বর্তমানে আটা দিয়ে কাগজের মাধ্যমে ব্যাগ তৈরি করে পাইকারি ও খুচরা বিক্রি করছে। এই ব্যবসাটি শুরু করলে বড় কোন এমাউন্টের টাকার প্রয়োজন নেই আপনি চাইলে অল্প টাকায় শুরু করতে পারেন।

2.মুদি দোকানের ব্যবসা

অনেকেই ভাবছেন মুদি দোকান তো সব সময় দেখি। মুদি দোকানের চাহিদা দিন যত যাবে ততো বাড়বে কারন হচ্ছে আমাদের দেশের জনসংখ্যা বাড়ছে। তাই আপনার মুদি দোকানে চাহিদা কখনো কমবেনা। আপনি কিন্তু মুদি দোকানের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এখানে আপনি চাল, ডাল,তেল, মরিচ ইত্যাদি সবকিছুই বিক্রি করতে পারেন।

3. মোবাইলে রিচার্জ, বিকাশ ও অনলাইন সেবা

মোবাইল রিচার্জ বিকাশ অনলাইন সেবা এ ধরনের ব্যবসা আপনি শুরু করতে পারেন। এটা কিন্তু সব সময় চাহিদা সম্পন্ন। দিন যত যাবে এই ব্যবসার চাহিদা ততই বাড়তে থাকবে। কারণ হচ্ছে প্রত্যেকের হাতে এখন মোবাইল ভবিষ্যতে এটি আরও অনেক বাড়বে। আপনি মোবাইলে চার্জ করতে পারেন অথবা অনেকে কিন্তু বিকাশে টাকা পাঠায় আপনি এটাও করতে পারেন। একই সাথে আপনি অনলাইন সেবা দিতে পারবেন। এটির জন্য আলাদা কোন দোকান দিতে হবে না আপনি চাইলে এই কাজগুলো ফাঁকেই অনলাইন সেবার কাজটি করতে পারবেন।
শুধু আপনার সাথে একটি কম্পিউটার থাকলেই হবে। কারণ এখন যাবতীয় যত আবেদন আছে সবগুলোই অনলাইনের মাধ্যমে করা হয়। যেমন চাকরির আবেদন বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির আবেদন ইত্যাদি।

4.কোচিং সেন্টার

আপনি শিক্ষিত কিন্তু বেকার কি করবেন ভাবছেন। কোন চিন্তা করার দরকার নেই আপনি শহরে থাকেন বা গ্রামে থাকেন একটি কোচিং সেন্টার চালু করে দিন। আপনার শিক্ষাটাকে সেখানে কাজে লাগান। কাজে লাগাতে লাগাতে দেখবেন আপনি অনেক কিছু শিখছেন সেখান থেকে দেখবেন আপনার একটা ব্যবস্থা হয়ে গেছে। কোচিং সেন্টারের মাধ্যমে কিন্তু অনেকেই এখন অনেক টাকা ইনকাম করছে। সুতরাং আপনি চাইলে একটি কোচিং সেন্টার খুলতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ  অনলাইন বিজনেস কি? বিস্তারিত...

5.মোবাইল, কম্পিউটার,টেলিভিশন ও ইলেকট্রনিক্স পণ্য রিপেয়ারিং

এই ব্যবসার চাহিদা অতীতে যেমন ছিল বর্তমানে যেমন আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। আধুনিক যুগে এখন প্রত্যেকের হাতে মোবাইল রয়েছে। একেই এখন কম্পিউটার ল্যাপটপ ব্যবহার করছে এবং প্রত্যেকের বাসায় এখন টেলিভিশন রয়েছে। যে পরিমাণ আমরা ইলেকট্রনিক্স পণ্য ইউজ করছি সেই পরিমাণ কিন্তু নষ্ট হচ্ছে। এগুলো ঠিক করতে আপনার নিয়ে যেতে হয় মেকানিকের কাছে। আপনি যদি এই ধরনের একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনার চাহিদা বেড়ে যাবে। আপনার ইনকাম বেড়ে যাবে কারণ হচ্ছে এই ব্যবসায় কোন লস নেই। কোন রিক্স নেই আপনি শিওর থাকেন আপনার এই ব্যবসা হবে ই। আপনি চাইলে এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন এবং আজই শুরু করে দিন এই রিপেয়ারিং এর ব্যবসা।

6. সেকেন্ড হ্যান্ড মোটরসাইকেল এর ব্যবসা

এখন আমরা প্রচুর পরিমাণে মোটরসাইকেল ব্যবহার করছি। অনেকে আবার সেই মোটরসাইকেল কিছুদিন ব্যবহার করে বিক্রি করে দিচ্ছে। আবার অনেকেই যাদের টাকা কম আছে তারা সেকেন্ড হ্যান্ড মোটরসাইকেল কিনে নিচ্ছে। আপনি চাইলে এ ধরনের ব্যবসা আপনার এলাকায় শুরু করতে পারেন যে এখানে পুরাতন মোটরসাইকেল ক্রয় বিক্রয় করা হয়। দেখবেন আপনার দোকানের সামনে লাইন লেগে গেছে। প্রথমে আপনার এলাকায় একটি দোকান নিয়ে নিন তারপর একটি সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিন যেখানে পুরাতন মোটরসাইকেল ক্রয় বিক্রয় করা হয়। আপনি দেখবেন যারা মোটরসাইকেল বিক্রি করবে তারা লাইন লাগিয়ে ফেলছে। কারণ হচ্ছে এই ব্যবসাটি এলাকায় খুব কম লোকই করে। আপনি যদি আপনার এলাকায় শুরু করেন তাহলে কিন্তু মানুষ আর ঢাকায় যাবে না আপনার কাছ থেকে নিতে পারবে। এটা কিন্তু অনেক লাভজনক ব্যবসা কারণ হচ্ছে আপনি অল্প টাকায় কিনে বেশি টাকায় বিক্রি করতে পারবেন। এই ব্যবসাটি শুরু করার আগে আপনি মোটরসাইকেলের টুকটাক মেরামতের কাজ জেনে নিবেন। এতে করে আপনার অনেক সুবিধা হবে। তাছাড়া আপনি চাইলে একজন দক্ষ মেকানিক নিতে পারবেন তাহলে আপনি এই ব্যবসায় সফল হবেন।

7. কাঁচামালের ব্যবসা

এটি একটি কমন ব্যবসা। এটি অনেকেই করে থাকে। তবে আপনি একটু ভিন্নভাবে শুরু করুন। আপনি কি করবেন আপনি এই কাঁচামাল গুলো যারা চাষ করে তাদের কাছ থেকে কিনে নিয়ে তারপর বিক্রি করবেন তাহলে আপনার লাভটা বেশি হবে এবং কম দামে বিক্রি করতে পারবেন। এই ব্যবসাটি অল্প টাকায় শুরু করা যায়। আজই শুরু করে দিন এই কাঁচামালের ব্যবসা।

8. ফাস্টফুডের দোকান

খাবারের দোকান দিয়ে কেউ লোকসানের সম্মুখীন হয়নি। এই খাবারের দোকানে নাকি তিনগুণ  হয়ে থাকে অনেকেই বলে। হ্যাঁ আপনি ঠিকই শুনেছেন আমি একদিন এক খাবারের হোটেল মালিকের সাথে আলাপ করে জেনেছি যে এই ব্যবসায় অনেক লাভ হয়ে থাকে। আর বর্তমানে তরুণ-তরুণীরা প্রচুর পরিমাণে ফাস্টফুড খেয়ে থাকে। আপনি যদি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন আপনি যে এলাকায় আছি সেই এলাকাতেই শুরু করে দিন। আপনাকে শহরে শুরু করতে হবে তা কিন্তু নয় আপনি চাইলে আপনার গ্রামে শুরু করতে পারেন। তবে অবশ্যই চেষ্টা করবেন ভালো মানের খাবার রাখার জন্য তাহলে আপনি খুবই তাড়াতাড়ি এই ব্যবসায় লাভবান হতে পারবেন।

9. ১ টু ৯৯

আপনারা কিন্তু এই ব্যবসাটি নাম অনেকেই শুনেছেন। আপনি চাইলে ব্যবসাটি নিতে পারেন এই ব্যবসাটি প্রচুর চাহিদা রয়েছে। ওয়ান টু 99 যেসব দোকান। রয়েছে আপনি চাইলে ঘুরে আসতে পারেন সন্ধ্যার দিকে আপনি গেলে গিয়ে দেখবেন প্রচুর পরিমাণে লোকের ভিড় রয়েছে। এই শব্দের প্রচুর কাস্টমার রয়েছে। এখানে অনেক গিফট আইটেম থেকে শুরু করে নিত্য প্রয়োজনীয় সকল ধরনের জিনিস রয়েছে। সবগুলো আইটেমের দাম এক টাকা থেকে 99 টাকার মধ্যে। আপনি চাইলে এই ব্যবসাটি করে লাভবান হতে পারেন। এই প্রোডাক্ট গুলো আপনি ঢাকা চকবাজার থেকে খুব কম দামে কিনতে পারবেন। সেখান থেকে প্রোডাক্ট আনলে আপনি লাভবান হবেন।

আরও পড়ুনঃ  ব্যবসা শুরু করার ছোট-বড় ৫০ টি বিজনেস আইডিয়া

10. সবজি ও ফল চাষাবাদ

আপনি যদি চাষাবাদ করতে পছন্দ করেন আপনি যদি গাছ লাগাতে ভালোবাসেন তাহলে এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। আপনার এলাকায় যে সবজি বেশি চলে সেই সবজি চাষাবাদ করার চেষ্টা করুন তাহলে আপনি খুব সহজেই লাভবান হতে পারবেন। প্রয়োজনে আপনি স্থানীয় উপজেলা থেকে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন তারা আপনাকে অনেক সহযোগিতা করবে। সুতরাং আজই শুরু করতে পারেন সবজি ও ফল চাষ আবাদের ব্যবসা।

11.গরু, ছাগল, হাঁস ও মুরগি চাষাবাদ

গরু ছাগল হাঁস মুরগি চাষাবাদ গ্রামে কিন্তু প্রত্যেক বাড়িতেই করে থাকে। আপনি যদি  আলাদা ভাবে একটি খামার করতে পারেন তাহলে আপনি লাভবান হতে পারবেন। এই ব্যবসা করে অনেকে ভাগ্য পরিবর্তন করেছে। অনেকেই লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে। তাই আপনিও শুরু করতে পারেন গরু ছাগল হাঁস মুরগি চাষ আবাদের ব্যবসা।

12. জামা কাপড় ও গার্মেন্টস ব্যবসা

আপনি আপনার এলাকায় সেটা গ্রামে হোক বা শহরে হোক আপনি যদি একটা কাপড়ের দোকান দিতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনি লাভবান। কাপড় ব্যবসায়ী কোন লোকসান নেই এই ব্যবসায় আপনি লাভবান হবে নি। কারণ হচ্ছে কাপড় সবাই চলে এবং সবার কাপড় লাগবে ই। আপনি যদি চান অল্প কিছু পুঁজি দিয়েই এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারো। কাপড়ের ব্যবসা করতে হলে আপনাকে পাইকারি দামে কাপড় কিনতে হবে এগুলো আপনি নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, ঢাকা ইত্যাদি বিভিন্ন স্থান থেকে কিনতে পারবেন। আপনি চাইলে পাইকারি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনার এলাকায় যে সকল দোকান রয়েছে সেই দোকানগুলোতে আপনি পাইকারি দামে কাপড় বিক্রি করতে পারবেন। কারণ হচ্ছে যারা দোকান চালায় তারা কিন্তু দূর থেকে প্রোডাক্ট কিনে আনতে চায় না আপনি যদি তাদের কাছে প্রোডাক্ট বিক্রি করেন তাহলে আপনি অনেক লাভবান হবেন। আপনি বিভিন্ন স্থান থেকে প্রোডাক্ট গুলো কালেক্ট করবেন। আপনার যে বাজার রয়েছে সেখানে একটি দোকান নিবেন অথবা একটি গোডাউন নিবেন তারপর আপনি দোকানগুলোতে প্রোডাক্ট সাপ্লাই দিবে ন। দেখবেন আপনার অনেক লাভ হচ্ছে। আপনি প্রয়োজনে বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে ডিলারশিপ নিতে পারেন।

13.ফার্মেসির দোকান

ফার্মেসি ব্যবসা করতে পারেন ফার্মেসি ব্যবসার চাহিদা কখনো কমে না। এর চাহিদা সব সময় থাকে। যতই পরিবেশ খারাপ হোক মহামারী হোক ফার্মেসি ব্যবসা সব সময় থাকে। এই ব্যবসায় কোন লস নাই। যতই মারামারি হোক ততই আপনি ওষুধ বিক্রি করতে পারবেন এটা কিন্তু আপনি অনেক লাভবান হতে পারবে। আপনি চাইলে একটি কোর্স করে নিতে পারেন। আপনি কোর্স করে নিলে আপনার বুঝতে অনেক সুবিধা হবে। বাজার যদি আপনি একটি ভাল করে ফার্মেসির দোকান দিতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনি অনেক লাভবান হবেন। এছাড়া আপনার ফার্মেসির দোকানে প্রতি সপ্তাহে এক থেকে দুই দিন একজন এমবিবিএস ডাক্তার বসাতে পারেন। তাহলে দেখবেন আপনার প্রচুর কাস্টমার আসছে এতে কিন্তু আপনি অনেক লাভবান হতে পারবে ন।

আরও পড়ুনঃ  বাংলাদেশের সেরা 40 টি লাভজনক বিজনেস আইডিয়া

14.দই, মিষ্টি ও ফলের দোকান

দই মিষ্টি ও ফল পছন্দ করে না এমন লোক খুবই কম পরিমাণে আছে। এবং এর চাহিদা সারা বছরে থাকে সব জায়গাতেই থাকে। আপনি গ্রামে থাকেন বা শহরে থাকেন সব জায়গায় এর চাহিদা রয়েছে। আপনি যেখানে আছেন সেখানে থেকেই এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

15.কসমেটিকস ও লাইব্রেরী

আপনি যদি অল্প টাকায় বেশি ইনকাম করতে চান এবং কম টাকায় বেশি লাভবান হতে চান তাহলে আপনি কসমেটিকস ও লাইব্রেরী ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এটিতে প্রচুর পরিমাণে লাভ হয়তো আমরা অনেকেই জানিনা। এর চাহিদা সব সময় রয়েছে এবং থাকবে। সুতরাং আপনি আজই শুরু করতে পারেন এই ধরনের কসমেটিকস ও লাইব্রেরী ব্যবসা।

16.জুস তৈরি

এই ব্যবসাটি অবশ্য গরমের সময় একটু বেশি চলে। আপনি যদি স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা এগুলো সামনে দিতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনি প্রচুর লাভবান হবেন। এছাড়া জমজমাট এলাকা যে এলাকাতে বিভিন্ন কারখানা রয়েছে মানুষের সমাগম রয়েছে সেগুলো সামনে যদি দিতে পারেন তাহলে অনেক লাভবান হতে পারবেন। তৈরি করে কিন্তু অনেকেই প্রচুর টাকা ইনকাম করছে। সুতরাং আছি আপনি শুরু করতে পারেন জুস তৈরি ব্যবসা। এ ব্যবসায় বেশি পুঁজির প্রয়োজন হয় না। আপনি খুব অল্প টাকায় এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

17.সেলাই ও দর্জির দোকান

এটির কিন্তু সব জায়গায় চাহিদা রয়েছে। বিশেষ করে অনেক মহিলাই করে থাকেন। আপনিও শুরু করতে পারেন সেই সাথে আপনি কিছু কাপড়চোপড় রাখতে পারেন। দেখবেন খুবই ভালো চলছে। ইনকাম ভালো হচ্ছে সুতরাং আজই শুরু করে দিন এ ধরনের একটি ব্যবসা।

18.মেকানিক্স বা ওয়ার্কশপ

আপনার এলাকায় যেসব বিল্ডিং গুলো হচ্ছে সেখানে দেখবেন গ্রিলের কাজ করা হয়। এই ব্যবসাটি যদি শুরু করতে পারেন  তাহলে কিন্তু আপনি অনেক লাভবান হতে পারবেন। প্রচুর পরিমাণে লাভ করতে পারবে ন। চাহিদা প্রচুর পরিমাণে রয়েছে এবং সারা বছর এর চাহিদা থাকবে। আপনি যদি ওয়ার্কশপ এর কাজ শিখে নিতে পারেন তাহলে আপনি আপনার এলাকায় একটি ওয়ার্কশপ এর দোকান দিয়ে ফেলুন। এ ব্যবসা করতে হলে পুঁজির বেশি প্রয়োজন হয় না। অল্প কিছু পুঁজি দিয়ে এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

19.নার্সারি

আপনার যদি গাছের প্রতি ভালোবাসা থাকে তাহলে আপনি নার্সারি করতে পারেন। এটি করে অনেকেই প্রচুর টাকা ইনকাম করছে। আপনার যদি গ্রামের বাড়িতে একটু খালি জায়গা থাকে সেখানে নার্সারি শুরু করুন। অথবা শহরের যদি আপনার ফাঁকা জায়গা থাকে সেখানেও নার্সারি শুরু করতে পারেন।
এই নার্সারি ব্যবসা করে প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব। সুতরাং আপনি যদি বৃক্ষপ্রেমিক হন তাহলে আজই শুরু করতে পারেন নার্সারির ব্যবসা।

20.হলুদ মরিচ মসলা ভাঙ্গানোর ব্যবসা

আমরা কিন্তু এখন আর পাটা পুটা ঘষাঘষি করে হলুদ মরিচ ভাঙ্গাইনা। আমরা মেশিন দিয়ে ভাঙ্গানোর চেষ্টা করি। আপনি যদি এ ধরনের একটি মেশিন বসাতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনি প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এখন কিন্তু আগের মত বড় আকারের মেশিন ছোট আকারের মেশিন রয়েছে। একদম আপনার বাসায় বসাতে পারবেন। আপনার বাসায় যে রোম রয়েছে সেখানে বসাতে পারবেন। এবং আপনার বাসায় যেয়ে 220 ভোল্টের বিদ্যুৎ রয়েছে সেটি দিয়ে আপনার মেশিন চালাতে পারবেন। এই মেশিন দিয়ে কিনতে মাত্র 30 থেকে 40 হাজার টাকা খরচ হয়। এই মেশিনটি বড় বড় দোকান থেকে কিনতে পারবেন। এই মেশিন দিয়ে হলুদ মরিচ ভাংগানোর পাশাপাশি আপনি গম ভাঙাতে পারবেন। তাহলে আপনারা আজই শুরু করে দেন এমন একটি ব্যবসা। এই ব্যবসায় প্রচুর টাকা ইনকাম করা সম্ভব। অল্প টাকা দিয়ে আপনি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারছেন।

আমি যে বিশটি ব্যবসার কথা বললাম এই ব্যবসা ছাড়াও আপনি চিন্তা করলে দেখবেন আরো অনেক ব্যবসা রয়েছে যেগুলো করলে আপনি অনেক লাভবান হতে পারবেন।

ধন্যবাদ।

Rate this post

4 thoughts on “2021 সালের 20 টি সেরা বিজনেস আইডিয়া”

  1. খুব ভালো লিখছেন ভাই?
    আমি অনেক দিন ধরে ভাবছি একটা ব্যবসা করবো। কিন্তু ভালো কোন ব্যবসা পাচ্ছি না। যদিও অনেক ব্যবসা আছে তবে সেইগুলা করার মতো সামর্থ্য আমার নেই। ধন্যবাদ ভাই আপনার এই আর্টিকেল টি পড়ে খুব ভালো লাগলো এবং আমি আমার ব্যবসার আইডিয়াটাও পেয়ে গেছি।
    দোয়া করবেন আমার জন্য! আবারো ধন্যবাদ?

    Reply

Leave a Comment